উগ্র হিন্দুত্বের পথেই বিজেপি! গুজরাটেও চালু লাভ জিহাদ আইন, সর্বোচ্ছ ১০ বছরের জেল

নিউজ ডেস্ক : হিন্দুত্বকেই হাতিয়ার বিজেপির।উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশের পথে এবার গুজরাট আরও এক বিজেপি-শাসিত রাজ্যে পাশ হয়ে গেল ‘লাভ জেহাদ’ বিরোধী বিল। এই বিল অনুযায়ী, জোর করে কাউকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করলে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ও সর্বোচ্চ ১০ বছরের জেল হতে পারে। প্রসঙ্গত, দীর্ঘ সময় ধরেই ‘লাভ জেহাদে’র বিরুদ্ধে সরব বিজেপি। ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশ, কর্ণাটক, মধ্যপ্রদেশ বা উত্তরাখণ্ডে ধর্মান্তরণ বিরোধী আইন পাশ করেছে। সেই পথে এবার গুজরাট সরকারও।

  1. আগেই জানা গিয়েছিল, রাজ্যের বিধানসভায় চলতি বাজেট অধিবেশনেই পেশ করা হবে এই বিল। ২০০৩ সালের একটি আইন ‘গুজরাট ফ্রিডম অফ রিলিজিয়ন অ্যাক্ট ২০০২’-এ সংশোধনী হিসেবে এই বিল পেশ করা হয়। ‘ধর্ম সতন্ত্র বিল ২০২১’ নামের ওই সংশোধনীতে বলা হয়েছে, বিয়ের লোভ দেখিয়ে ধর্মান্তরণ আটকাতেই এই বিল।

ওই বিলে বলা হয়েছে, ধর্মান্তরণ করে বিয়ে করলে পাঁচ বছরের সাজা ও সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা জরিমানা হতে পারে। মেয়েটি নাবালিকা কিংবা দলিত বা তফসিলি জাতির হলে ৪ থেকে ৭ বছরের জেল, সঙ্গে অন্তত ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা। আর যদি কোনও সংগঠন এই আইন ভাঙে, সেক্ষেত্রে দোষী ব্যক্তির ন্যূনতম ৩ বছর থেকে সর্বোচ্চ ১০ বছরের সাজা হতে পারে। সেই সঙ্গে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানাও।

বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) দিনভর বিলটি নিয়ে পর্যালোচনা হয়। তারপর তা পাশ হয়ে যায়। যদিও বিলটির বিপক্ষে ভোট দিয়েছিল রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস। বিরোধী দলনেতা পরেশ ধনানি বলেন, ”ভালবাসায় কোনও প্রাচীর হয় না। কোনও ধর্ম কিংবা জাতি থাকে না। এটা অনুভূতির ব্যাপার। তাকে আটকানো উচিত নয়। অনুভূতিকে কেউই আটকাতে পারে না।”