১৪৪ ধারাতেও নন্দীগ্রামে বোমা নিয়ে ধরা পড়লো বিজেপি! বন্ধ ইন্টারনেট

নিউজ ডেস্ক : নন্দীগ্রামে ভোট, দুই হেবিওয়েট প্রার্থীর লড়াই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর সাথে বিজেপির প্রার্থী শুভেন্দুর কাঁটায় কাঁটায় টক্কর চলছে। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া শুভেন্দুর শক্তি পরীক্ষা এই বিধানসভা ভোট। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর ইজ্জত ও সম্মান রক্ষার বিষয় জড়িত। এদিকে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী মীনাক্ষীও সমানে পাল্লা দিয়ে যাচ্ছেন। ত্রিমুখী লড়ায়ের নন্দীগ্রামের রাজনীতি হাইভোল্টেজ ম্যাচে পরিণত। বিজেপি নন্দীগ্রামে জয়লাভ করতে উত্তর প্রদেশ, বিহার থেকে লোক ঢুকিয়েছে, সেই অভিযোগ ছিল এবং প্রমানও পাওয়া গিয়েছে। ভোটের আগের রাত্রে বিজেপি নন্দীগ্রামে বোমা ঢুকাতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা পড়লো।

ব্যাগ ভর্তি বোমা নিয়ে নন্দীগ্রামের সোনাচূড়া থেকে পাকড়াও এক বিজেপি কর্মী। ওই ব্যক্তির নাম, নাড়ু দাস। তার সঙ্গে উত্তম পাত্র বলে আরও একজন ছিল, তিনি ধৃত । বহিরাগত হিসাবে ওই দু’জন বাইকে করে আসতেই নাড়ুকে ধরে ফেলেন তৃণমূলের কিছু কর্মী সমর্থকরা। তারপরই তৃণমূল কর্মী-সমর্থকেরা তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে নাড়ু দাস বলেন, বিজেপির স্থানীয় মন্ডল সভাপতি জয়দেব নামে এক ব্যক্তি তার কর্মী-সমর্থককে দিয়ে তাদের ফোন করে ডাকেন। তারা সেখানে গেলেই তাদের হাতে একটি ব্যাগ ধরিয়ে দেয় বিজেপি নেতার অনুগামীরা। তার মধ্যে বোমা থাকার কথা জানতে পারায় সেখানে ওই দুই বিজেপি কর্মী প্রথমে নারাজ হন বলে দাবি নাড়ু দাসের। কিন্তু তাদেরকে জোর করে সেগুলি দিয়ে অন্যত্র পাঠায় তারা, এমনটাই দাবি করেছে ওই ব্যক্তি। সূত্রের খবর, তারপরই ওই দুই ব্যক্তিকে পুলিশের হাতে তৈরি তুলে দেয় তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা।

প্রশ্ন উঠছে, আগামিকাল সকাল থেকে কি পরিস্থিতি আদৌ শান্তিপূর্ণ থাকবে? এসব ঘটনার জেরে অশান্তির চূড়ান্ত বাতাবরণ যে সৃষ্টি হতে চলেছে তা ক্রমশই স্পষ্ট হচ্ছে। ইতিমধ্যে ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে নন্দীগ্রামে, অন্যদিকে ইন্টারনেট বন্ধ। নন্দীগ্রামে অভিনব হবে, যেটা বিশ্বের প্রথম!

দেখুন বোমা নিয়ে ধরা পড়ারভিডিও :-

hps://youtu.be/KuTTXZHubNY