সর্ষের মধ্যে ভূত, ‘লস্কর জঙ্গি’ বিজেপির জম্মুর IT সেলের ইনচার্জ!

নিউজ ডেস্ক : দুই লস্কর-ই-তইবা জঙ্গিকে হাতেনাতে ধরল জম্মুর গ্রামবাসী। জানা গিয়েছে, তাদের মধ্যে একজন বিজেপির কর্মী ছিল। সঙ্গে বেশ কিছু অস্ত্রও উদ্ধার করেছে তারা। দুই জঙ্গিকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই কাশ্মীরে জঙ্গি দমনে কড়া ভূমিকা  নিয়েছে নিরাপত্তাবাহিনী। এলাকায় শান্তি রক্ষার দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছেন সাধারণ মানুষও। গ্রামবাসীদের এমন সাহসিকতার জন্য আর্থিক পুরস্কারও ঘোষণা করেছে জম্মু-কাশ্মীর সরকার ও পুলিশ। রাজস্থানের উদয়পুরে হত্যার মূল অভিযুক্ত রিয়াজও বিজেপি কর্মী।

বড় সাফল্য নিরাপত্তা বাহিনীর। আজ রবিবার লস্কর-ই-তৈবার শীর্ষস্থানীয় নেতা তালিব হুসেন শাহ সহ দুই জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে জম্মু পুলিশ। ধৃত তালিবের পরিচয় জেনে মাথায় হাত তদন্তকারীদের। কারণ তালিব বর্তমানে জম্মুতে বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চার মিডিয়া ইন-চার্জ। এই ঘটনায় চাপে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও।

তালিবের সঙ্গে ফয়জল আহমেদ দার নামে আরেক জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, তালিব মূলত কান্ডি-বুধাল এলাকায় লস্কর জঙ্গীদের আশ্রয়দাতা হিসেবে কাজ করে। তাদের থেকে দুটি একে-৪৭ রাইফেল, সাতটি গ্রেনেড ও একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া পাওয়া গিয়েছে ৫টি আইইডি, ৫টি রিমোট, বিস্ফোরক ও অন্যান্য আইইডি সংক্রান্ত সামগ্রী। স্থানীয় একটি জঙ্গল ও ধৃতদের বাড়ি থেকে ওই সামগ্রী উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বিজেপি নিজেদের বাঁচাতে সাফাই দিতে শুরু করেছে। বিজেপি সংখ্যালঘু মোর্চার তরফে বলা হয়েছে, তালিব হুসেন নামে ওই জঙ্গি দু’মাস আগে পর্যন্ত দলের সঙ্গে যুক্ত ছিল। বহুদিন ধরেই সংখ্যালঘু মোর্চার সঙ্গে যুক্ত ছিল সে। তালিবের সঙ্গে জম্মু কাশ্মীরের বিজেপি প্রেসিডেন্ট রবিন্দর রায়নার সঙ্গে বেশ কয়েকটি ছবিও পাওয়া গিয়েছে। তবে সাফাই দিয়ে বিজেপির তরফে রাজৌরি এলাকার জেলা প্রেসিডেন্ট বলেছেন, “অনেকেই আমাদের দলে যোগদান করেন। কে কোন জায়গা থেকে যোগ দিচ্ছেন তার দিকে নজর রাখা সম্ভব নয়। তবে বিজেপি নেতাদের সঙ্গে তালিবের ছবি রয়েছে, একথা অস্বীকার করা যায় না।”

এই ঘটনার কথা জানতে পেরে গ্রামবাসীদের সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের উপরাজ্যপাল মনোজ সিনহা। টুইট করে তিনি লিখেছেন, “তাস্কান গ্রামের মানুষের সাহসিকতাকে স্যালুট জানাই। দুই মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গিকে আটক করেছেন তাঁরা। সাধারণ মানুষের এমন কাজ দেখে মনে হচ্ছে, সন্ত্রাসবাদ খুব তাড়াতাড়ি শেষ হতে চলেছে। গ্রামবাসীদের সাহসিকতার জন্য পাঁচ লক্ষ টাকা আর্থিক পুরস্কার ঘোষণা করেছে কাশ্মীর সরকার।”

এমন ঘটনায় উচ্ছ্বসিত কাশ্মীর পুলিশও। অ্যাডিশনাল ডিজি জানিয়েছেন, “তাস্কান গ্রামের বাসিন্দারা দুই লস্কর জঙ্গিকে আটক করেছেন। তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে। তাই গ্রামবাসীদের জন্য দু’ লক্ষ টাকার পুরস্কার ঘোষণা করছে কাশ্মীর পুলিশ।” প্রসঙ্গত, কয়েক দিন আগেই আরও দুই লস্কর জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছিল কাশ্মীর পুলিশ।

…….