মোদীর নতুন, মজবুত ভারতে, ট্রেন ধরার জন্য স্টেশনে অপেক্ষাতে লাগবে টাকা! AC-তে ঘন্টায় ৫০, AC ছাড়া ৩০

নিউজ ডেস্ক : দেশ উন্নয়নের নতুন নিয়ম, ট্রেন ধরতে আসা যাত্রীদের স্টেশনে অপেক্ষা করতে ঘন্টায় হিসাবে টাকা দিতে হবে। রেল বোর্ডের যুগ্ম নির্দেশক (বাণিজ্য) আশুতোষ মিশ্র সম্প্রতি রেল জোনগুলিতে নির্দেশে জানিয়েছে, স্টেশনগুলোতে দ্বিতীয় শ্রেণীর প্রতিক্ষালয়গুলি এবার বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়ার হবে। যার প্রক্রিয়া শুরু করা হোক। নির্দেশিকায় স্পষ্ট করে হয়েছে। প্রথম শ্ৰেণী প্রতীক্ষালয় গুলি আগেই ঘন্টা হিসাবে ভাড়া নেওয়া হয়তো।

প্রথম শ্রেণী প্রতিক্ষালয় বাতানুকূলে অপেক্ষা করতে যাত্রীদের ঘন্টায় দিতে নতুন নিয়মের প্রতিক্ষালয়ে পঞ্চাশ টাকা, বাতানুকূলহীন (এসি ছাড়া) প্রতীক্ষালয়ে দিতে হবে ঘন্টায় ত্রিশ টাকা। পাশাপাশি যাত্রীরা স্টেশনের খোলা জায়গায় এসে অপেক্ষাও করতে পারবেন না। ট্রেন ছাড়ার আধ ঘন্টা আগে মিলবে স্টেশনে ঢোকার অনুমতি। এই প্রক্রিয়া চালু করে প্রতিক্ষালয়ে যাত্রীদের যেতে বাধ্য করবে রেল বলে মনে করেছে বিশেষজ্ঞ মহল। আগে চালু ছিলো বাতানুকূল প্রতীক্ষালয়ে ঘন্টায় ১০ টাকা।

নতুন নিয়মে ট্রেন ছাড়ার তিন ঘন্টা আগে যাত্রীরা প্রতিক্ষালয়ে আসতে পারবেন। ট্রেন ছাড়ার পর তারা তিন ঘন্টা অপেক্ষা করতে পারবেন। এজন্য ঘন্টা প্রতি ত্রিশ টাকা দিতে হবে তাকে। কয়েক বছর আগে উচ্চ শ্রেণীর যাত্রীদের জন্য বরাদ্দ বাতানুকূল প্রতিক্ষালয়গুলি থেকে টাকা নেওয়া শুরু হয়। প্রতি ঘন্টায় দশ টাকা। বাতানুকূল বিহীন প্রতিক্ষালয়গুলি এতকাল বিনা পয়সায় যাত্রীরা ব্যাবহার করতে পারতেন। এখন লাগবে ঘন্টায় ত্রিশ টাকা। এখন ট্রেন বিলম্ব হলে যাত্রীরা সেই সময় বাড়তি পান, যা নতুন আইন বাতিল করা হবে। ট্রেন বিলম্বে এলেও ঘন্টা হিসেবে বাড়তি টাকা গুনতে হবে যাত্রীদের।

রেলের অন্দরে নতুন এই নিয়মের সমালোচনা হলেও, আগামী কিছু দিনের মধ্যে এই নিয়ম চালু হয়ে হবে বলে জানিয়েছে রেল। পূর্ব রেলের (Eastern Rail) জনৈক বাণিজ্য অধিকর্তা জানিয়েছেন, যাত্রীদের উপর চাপ পড়বে নিশ্চিত।