পড়াশুনা চালু ও স্কুল খোলার বিরোধিতা করে হাইকোর্টে মামলা আইনজীবী সুদীপের !

নিউজ ডেস্ক : দীর্ঘ দেড় বছরের বেশি সময় ধরে স্কুলের স্বাভাবিক পঠন-পাঠন বন্ধ আছে। আগামী ১৬ নভেম্বর নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পঠন-পাঠন স্বাভাবিক করার জন্য স্কুল খুলছে। স্কুল খোলার বিষয় ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ২৫ নভেম্বরে এনিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। স্কুল খোলার বিরোধীতা করে, রাজ্যের সিধান্ত নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হাইকোর্টে।

সুদীপ ঘোষ চৌধুরী নামে আইনজীবী রাজ্য সরকারের ওই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা করেছেন। তিনি আদালতে আবেদনে জানিয়েছেন, কোনও পরিকল্পনা ছাড়াই স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য। স্কুল খোলা হচ্ছে অথচ পড়ুয়াদের কোনও ভ্যাকসিন দেওয়া হয়নি। এতে অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা বাড়বে পড়ুয়াদের। এরকম এক পরিস্থিতিতে ক্লাস শুরু করা উচিত কিনা তা খতিয়ে দেখতে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হোক। স্কুল খোলার ফলে একটি ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে, তাই স্কুল বন্ধ রাখা হোক।

ইতিমধ্যেই স্কুল খোলার ব্যাপারে নির্দেশিকা জারি করে দিয়েছে রাজ্য সরকার।  সেখানে বলা হয়েছে, সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে তিনটে পর্যন্ত নবম ও একাদশ শ্রেণির ক্লাস হবে। অন্যদিকে, সকাল ১০টা থেকে বিকেল চারটে পর্যন্ত ক্লাস হবে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির। এর জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে রাজ্যের স্কুলগুলি।

স্কুল খোলার বিরোধীতা করে হাইকোর্টে মামলাতে নেট দুনিয়াতে প্রতিবাদের ঝড় শুরু হয়েছে। বিভিন্ন পোস্টে সুদীপ ঘোষ আইনজীবিকে শয়তান বলতেও দেখা গিয়েছে। কোন কোন পোস্টে মূর্খ, শিক্ষা বিরোধী মানুষের বলেও উল্লেখ্য করছেন নেটিজনরা। করোনাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে সব কিছুই চলছে, শুধুমাত্র স্কুল ছাড়া।