ভোট লড়াইয়ের আগেই মিম পাটির পরাজয়! প্রধানমুখ আনোয়ার পাশা চলে গেলেন তৃণমূলে

নিউজ ডেস্ক : বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলের মাষ্টার স্টোক। বাংলাতে মিমের ‘প্রধানমুখ’ যোগ দিলেন তৃণমূলে। আনোয়ার হোসেন পাশা যোগ দিলেন তৃণমূলে। তিনি মিমের কর্মী এবং সমর্থকদেরও তৃণমূলে যোগ দেওয়ার আহ্বান করছেন। তৃনমূল নেতা ব্রাপ্ত বসু বলেন, বিভিন্ন জেলা থেকে মিমের সদস্যরা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন।

তৃণমূলে যোগ দিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে  আনোয়ার পাশা বলেছেন, ‘ সব ধর্মের সহাবস্থান বাংলায়।  তাতে বিভাজনের চেষ্টা হচ্ছে।  ভোট ভেঙে বিহারে ক্ষমতায় এসেছে গেরুয়া শক্তি । বিহারে যা হয়েছে বাংলায় তা হতে দেওয়া যাবে না। গেরুয়া শক্তিকে রুখতে মমতার হাত শক্ত করুন।’ তিনি আরো বলেন বিজেপিকে রুখতে গেলে ভোট বিভাজন রুখতে হবে। বিজেপি বিরুধী ভোটকে ঐক্য করতে মিম ছেড়ে তৃণমূলে যুক্ত হয়েছি।

বিহারের সদ্য বিধানসভার নির্বাচনে এবার পাঁচটি আসনে জিতেছে আসাদ উদ্দিন ওয়েইসির AIMIM পাটি(সংক্ষেপে মিম)। বিহারে মিমের সাফল্য এই প্রথম। তুলনামুলক ভাবে চমকপ্রদ ফল করেছেন মিম। ২৪-টি আসনে পার্থী দিয়ে ৫-টিতে জয়লাভ।

বিহারের ভোটের ফলাফল ঘোষনার দিনেই মিম পাটির প্রধান ওয়েসি জানিয়ে ছিলেন ২০২১ বিধানসভাতে ভোটে লড়বেন। ঘোষনার পর থেকেই তৃণমূলের কপালে ভাঁজ পড়েছিল। তৃণমূলের সংখ্যালঘু ভোট ভিত্তি মিম থাবা বসালে রাজ্যের আসন্ন নির্বাচনে শাসক দলকে সমস্যার মুখে পড়তে হতে পারে। এই অবস্থায় তৃণমূল মিমের বিরুদ্ধে আক্রমণ জোরাল করেছিলেন এই পরিস্থিতিতে এ রাজ্যে মিমের অন্যতম শীর্ষ নেতার তৃণমূলে যোগদান তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলাতে মিমের অন্যতম নেতা তৃণমূলে যাওয়াটা মিম পাটির বড়ো ক্ষতি। মিম বলতে বাংলাতে আনোয়ার পাশাকেই জানতো মানুষ। যিনি সব ভাষণে তৃনমূল সরকার ও মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রান করতেন, তিনি আজ তৃনমূল গেলেন। ভোটের ময়দানে লড়াইয়ের আগেই মিম পাটিকে কার্যত গোল দিলেন তৃনমূল বলা যায়। মিম পাটির শক্তি অনেকটাই খর্ব হয়েছে। মিম পাটির নেতাদের বিশ্বাসের উপর প্রশ্ন উঠলো !!