নেপাল ভারত সংঘর্ষ, এক ভারতীয় নিহত দুইজন হাসপাতালে ভর্তি, নির্বাক প্রধানমন্ত্রী মোদি!

নিউজ ডেস্ক : নেপালের নয়া মানচিত্র প্রকাশ নিয়ে ইতিমধ্যেই যথেষ্ট অশান্ত ভারত-নেপাল সম্পর্ক। তার মধ্যে যুক্ত হলো গুলির লড়াই। শুক্রবার ভারতীয় কৃষকদের লক্ষ্য করে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠল নেপাল পুলিশের বিরুদ্ধে। বিহারে ভারত-নেপাল সীমান্তের সীতামারিতে গুলিতে নিহত হয়েছেন একজন। আহত আরও ২ ভারতীয় নাগরকি। বিহার সেক্টরের সশস্ত্র সীমা বলের (SSB) IG প্রথম এই তথ্য জানিয়েছেন। স্থানীয়দের অভিযোগ, নেপালের দিক থেকেই গুলি ছোঁড়া হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, নিহত যুবকের নাম বিকেশ রাই (২৫)। লালবন্দির জনম নগরের বাসিন্দা বিকেশ সীমান্তের কাছে খামারে কাজ করছিলেন, যখন সীমান্তের ওপার থেকে তাঁর শরীরে গুলি লাগে। আহতদের নাম উমেশ রাম ও উদয় ঠাকুর। এরা প্রত্যেকেই কৃষক বলে জানা গেছে। আহতদের সীতামারি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লগন রাই বলে এক ব্যক্তিকে আটকে রেখেছে নেপাল পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগ, ১৭ রাউন্ড গুলি চালানো হয়েছে নেপালের দিক থেকে।

পুলিশ সূত্রের খবর, ভারত ও নেপাল পুলিশের মধ্যে বিভেদই এই ঘটনার নেপথ্যে। লালবন্দি-জানকি নগর সীমান্তে এই ঘটনা হয়েছে। মৃতের বাবা নাগেশ্বর জানিয়েছেন যে তাঁর ছেলে যেখানে কাজ করত, সেটা নেপালের অংশ। এসএসবি ডিজি জানিয়েছেন যে ঘটনাটি নেপালের সীমান্তে অনেকটা ভিতরে হয়েছে। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক।

অতিরিক্ত ডিজি জিতেন্দ্র কুমার জানিয়েছেন যে ঘটনায় এক ভারতীয় নিহত হয়েছেন ও দুইজন আহত। তবে যেখানে এই গুলি চলেছে, সেটা নেপালের অন্তর্গত বলে পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন। তিনি এটাও বলেছেন যে এসপি ও জেলাশাসক ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন।

ভারতের সঙ্গে ১৮৫০ কিলোমিটারের খোলা সীমান্ত আছে নেপালের। দুই দেশের মানুষরাই সীমান্ত পেরিয়ে একে অপরের সঙ্গে দেখা করেন। করোনার জেরে মার্চের ২২ তারিখ সীমান্ত সিল করে দেয় নেপাল। গত ১৭ মে ভারতীয়দের সীমান্ত পেরিয়ে নেপালে প্রবেশ আটকাতে আকাশে গুলি চালিয়েছিল ওই দেশের পুলিশ।

ভারতের অধীনে থাকা একলাকে নিজেদের মানচিত্রে অংশে পরিনত করে নতুন মানচিত্র প্রকাশ নেপালের। ১৮ কিমি ভারতের অংশকে নেপালের উলেখ্য করে সংসদে পাসও করিয়েছে নেপাল। সীমান্তে ভারতীয় হত্যা করে নেপাল ভারতকে চ্যালেন ছুড়েছে বলা যায়। পাকিস্থানের সঙ্গে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের জনক প্রধানমন্ত্রী মোদি নেপালকে কি প্রতিউত্তর দেন!