দাদাগিরিতে পুলিশ, গাড়িতে ধাক্কা মেরে ১-কিমি টেনে নিয়ে গেলেন পথচারীকে! ঘটনা কলকাতা

নিউজ ডেস্ক : রক্ষকই ভক্ষক! চলন্ত গাড়িতে এক যুবককে ধাক্কা দিয়ে টানতে টানতে প্রায় এক কিলোমিটার নিয়ে গেল পুলিশের গাড়ি। যাঁর হাতে স্টিয়ারিং, তিনি কলকাতার লেক থানার এসআই। শনিবার রাতে এমনই রোমহর্ষক দৃশ্যের সাক্ষী হয়েছে সোদপুরের বিটি রোড।

কোনও সিনেমার দৃশ্য নয়। শুক্রবার রাতে সোদপুরের বিটি রোডে এমনটাই ঘটল রাত দশটা নাগাদ। ঘটনায় অভিযুক্ত লেক থানার এসআই সৌমেন দাস। সে মত্ত ছিল বলে অভিযোগ। তাকে গ্রেফতার করছে খড়দহ পুলিশ খড়দহের বাসিন্দা এমবিএ-র ছাত্র রবি সিংয়ের অভিযোগ, ওই দিন রাতে সোদপুরে বিটি রোডের উপরে একটি রেস্তোরাঁর বাইরে তিনি তাঁর গাড়িটি পার্কিং করে, খাবার অর্ডার দেন। এরই মধ্যে একটি পুলিশের স্টিকার লাগানো গাড়ি এসে তাঁর গাড়ির পিছনে ধাক্কা মারে! গাড়িটি চালাচ্ছিল লেক থানার এসআই সৌমেন

ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, বনেটে যুবককে নিয়েই জোরে গাড়ি ছোটাচ্ছেন ওই পুলিশকর্মী। ‘হেল্প’, ‘হেল্প’ বলে চিৎকার করতে থাকেন ওই যুবক। খানিকটা এ ভাবে যাওয়ার পর গাড়ি থামান এসআই। তার পর গাড়ি থেকে নেমে যুবকের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়ান। আক্রান্ত খড়দহের বাসিন্দা রবি সিংয়ের অভিযোগ, গাড়ি থেকে নেমে ওই পুলিশকর্মী তাঁকে বেধড়ক মারধর করেন। খড়দহ থানায় এসআই-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্ত যুবক। ওই পুলিশ কর্মী মত্ত ছিলেন বলে দাবি করেছেন তিনি। সূত্রের খবর, অভিযুক্ত পুলিশকর্মীর গাড়ি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

আজ ব্যারাকপুর আদালতে পাঠানো হয় অভিযুক্তকে। 323, 341, 307, 427, 506 পাঁচটি ধারায় মামলা রুজু হয়।