প্রেমে নারাজ যুবতী, প্রতিশোধে ৭-জনকে পুড়িয়ে মারলো যুবক সঞ্জয়! ঘটনা মধ্যপ্রদেশ

নিউজ ডেস্ক : প্রেম অসফল হয়ে গণহত্যা। বিয়ে করতে চেয়েছিলেন পাশের ফ্ল্যাটেরই এক তরুণীকে। কিন্তু তিনি বিশেষ পাত্তা দেননি। ক্ষোভের বশে তরুণীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টায় বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেন ‘প্রেমিক’। তরুণী বেঁচে গেলেও, ঝলসে মৃত্যু হয়েছে ওই কমপ্লেক্সের সাত জনের, ঘটনা মধ্যপ্রদেশ। অভিযুক্ত সঞ্জয় দীক্ষিত ওরফে শুভমের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। সম্প্রতি বাংলার বীরভূমের বগটুয়ে এমনই প্রতি হিংসার ঘটনাতে ১০ জনকে পুড়িয়ে মারা হয়েছিল, সেটা ঠিক রাজনৈতিক।

৯ এপ্রিল শনিবার ভোরে মধ্যপ্রদেশের ইনদওরের বিজয়নগরের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, বিজয়নগরের ওই কমপ্লেক্সে ভাড়া থাকতেন শুভম। মাস কয়েক আগে সেখান থেকে অন্যত্র চলে যান। ওই কমপ্লেক্সে থাকার সময় পড়শি এক তরুণীর প্রেমে পড়েন তিনি। তাঁকে বিয়ে করার প্রস্তাবও দেন। কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন। শুভম যখন জানতে পারেন যে তরুণীর অন্যত্র বিয়ে হচ্ছে, প্রতিশোধ নেওয়ার পরিকল্পনা করেন। পুলিশের ধারণা, সেই রাগের বশেই কমপ্লেক্সের গ্যারাজে রাখা তরুণীর স্কুটারে আগুন লাগিয়ে দেন শুভম। তখন সবাই ঘুমে আচ্ছন্ন ছিলেন।

স্কুটারের আগুন ধীরে ধীরে কমপ্লেক্সের ভিতর ছড়িয়ে পড়ে। আগুন লাগার ঘটনা কমপ্লেক্সের কয়েক জন টের পেতেই প্রাণ বাঁচানোর জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। কিন্তু তত ক্ষণে আগুন এক তলা বেয়ে দোতলা, তিনতলার দিকে এগিয়ে গিয়েছিল। কয়েক জন ব্যালকনি থেকে ঝাঁপ মেরে প্রাণে বাঁচলেও সাত জনের ঝলসে মৃত্যু হয়। শুভমের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

প্রেম ভালোবাসা,পরক্রিয়া, বিভিন্ন সম্পর্ক নিয়ে ভারতে হত্যা, আত্মহত্যা, বেড়েই চলেছে দিনদিন। দেশ এক ভয়ংকর দিয়ে যাচ্ছে!